আজকাল পরশুর কাহিনী

সুজাতা চৌধুরী
কবিতা
Bengali
আজকাল পরশুর কাহিনী

এক

কত বিচ্ছেদের সাঁকো পেরোলে
সেখানে পৌঁছব?
হে প্রেম, ব্রহ্মকমল হয়ে
ফুটে আছো নন্দন কাননে।

দুই

বড় অমোঘ হয়ে উঠছ তুমি
রোজ একটু একটু করে।
আজ
কাল
পরশুর
কাহিনীতে একটু একটু করে
যুক্ত করছ নিজেকে।
আজ
কাল
পরশুর
ছবিতে রং বোলাচ্ছ তুমি,
ধীরে ধীরে
ফুটে উঠছে অবয়ব তোমার।
আনন্দ তুমি
বিরহ তুমি
শান্তি তুমি
অমোঘ তুমি
আমার_আমার তুমি।

তিন

তবু তো ছুঁয়ে থাকো তুমি।
আমাকে।
এ জন্মকে।
ছেড়ে যাওয়া যায়না সবটা।
জলের দাগ তবু লেগে থাকে
পাড়ের মাটিতে
মাঝির বৈঠায়।
আজন্ম স্মৃতির ঢেউ লেগে থাকে
সান্ধ্য নদিতে।

চার

রোজ কিছু কথাকে জ্যান্ত কবর দিই
বুকের গভীরে।
ইঁট গেঁথে তুলে দিই
হাসিখুশি সুখের প্রাচীর।
কত কথা রোজ গেঁথে দিই
বুকের পাঁজরে।
পাঁজরেরা আজকাল
বড় আর্তনাদ করে।

পাঁচ

এই অগোছালো ঘরকন্নার মাঝে
ঢুকে পড়ে একফালি
দ্বিধাগ্রস্ত রোদ।
দাঁড়ায় লাজুক।
পিঁড়ি পেতে দিয়ে বলি,
” বসো। দাঁড়িয়ে কেন?”
রোদ মুচকি হাসে।
“আমি এলে সারে বুঝি
যাবতীয় সব দুঃখ শোক ?”

সুজাতা চৌধুরী। কবি ও  বাচিক শিল্পী। জন্ম ভারতের অসমরাজ্যের বরাক উপত্যকায়, বর্তমান নিবাস কলকাতা। তিনি সাহিত্যের পত্রিকা 'অনিবার্য' সম্পাদনার পাশাপাশি একজন লোকসংগীত শিল্পী। প্রকাশিত বই: 'এক পৃথিবীর ছবি' (কাব্যগ্রন্থ)

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..