আজ আর কিছু নেই

রুদ্র অয়ন
কবিতা
Bengali
আজ আর কিছু নেই
আজ আর কিছু নেই
আমার একটা
শিউলি ঝরা ভোর ছিলো।
বরশী দিয়ে
নদীতে মাছ ধরার
একটা দুপুর ছিলো।
ছিলো ডাংগুলি খেলার
স্বপ্নিল বিকেল।
প্রতিদিন মনের সুখে
স্কুলে যাওয়ার
সোনালি দিন ছিলো।
মায়ের আদর
বাবার শাসন আর
দূরন্ত কৈশোর ছিলো।
চারদিকে শুধুই আনন্দ
আর আলো ছিলো।
গাছে গাছে ফুল, পাখি,
নদীর জলে নৌকা,
লঞ্চের হুইসেল আর
আইক্রিমওয়ালার ডাক ছিলো।
কাউকে ভালোলাগার
একটি সুন্দর মন ছিলো।
ভালোলাগা-ভালোবাসার
একটা মানুষ ছিলো।
আজ আমি আছি ঠিকই
কিন্তু এগুলোর আজ
আর কিছু নেই, কিচ্ছু নেই!
আমি তোমার কেউ নই
আমি তোমার কাছে না থেকেও
কাছে থাকার অব্যক্ত অনুভব!
আমি তো তোমার কেউ নই
তোমার সুখের দিনে দূরে থাকা
আমি তোমার অসময়ের ডাক!
চাই যে তোমার দুঃখের ভাগ।
আমি তোমার কেউ নই
তবু তুমি আমার অনেক কিছু!
আমি কেবল
ক্ষনিক পাওয়া মুগ্ধতা,
হারিয়ে গেলে মরিয়া হয়ে
দিগ্বিদিক হাতড়ে ফেরা
কোনও চাওয়া।
আমি কেবল একাকী প্রহর!
অখণ্ড অবসরে
হৃদয়ের আনাচে কানাচে
ঘুরে বেড়ানো নিঃশব্দ
কোনও পায়চারী!
ছুঁয়ে যাওয়া উষ্ণতা।
আমি কেউ নই,
আমি কেবল
যাতনা-বাসনা-সাধনাতে
খুঁজে পাওয়া অনন্ত আশ্বাস!
আমি কেবল বিচ্ছেদী বেদনা,
দুঃখ কুড়োনো সুখ!
আমি তো তোমার কেউ নই
আমি কেবল নিয়ম না মানা
অহর্নিশ নিরব ভালোবাসা!
আমি তোমার কেউ নই
তবুও হয়তো আমি
মনের কোণে আলগোছে
তুলে রাখা একটি নাম,
তন্দ্রা জড়ানো কোনও মায়া;
অদৃশ্য পিছুটান!
অনেকের ভীড়ে কেউ না হয়েও
হয়তো আমি কেউ!
তোমাকেই চাই 
 
শীতের তীব্রতায়
উষ্ণ পরশ পেতে
তোমাকে চাই প্রেয়সীতমা।
কাঁপুনি দিয়ে জ্বরের মুহূর্তে
জলপট্টি করার জন্য হলেও
তোমাকে চাই!
বিকেলের শ্রান্ত প্রহরে
অথবা গোধূলি বেলায়
এক-কাপ কফির সাথে
গল্প আড্ডায় তোমায় চাই!
হঠাৎ করে মাথা-ব্যথা হলে বা
বাহানা করে স্পর্শ পাওয়ার
জন্য হলেও তোমায় চাই!
নিদ্রাহীন কোনও নিশিথে
বড্ড অস্থিরতাবোধ হলে
কোলে মাথা রাখার জন্য
হলেও তোমায় চাই!
ভালো লাগা কিম্বা
মন্দ লাগার সকল মুহূর্তে
সঙ্গ দেয়ার জন্য হলেও
তোমায় চাই!
প্রয়োজনে অথবা অপ্রয়োজনে
জীবনের প্রতিটা ক্ষণে
তোমাকেই চাই প্রেয়সীতমা।
তোমাকে আর ভালোবাসবোনা
একদিন তুমি আমাকে
অনুভব করবে
যেমন তোমাকে করেছি আমি।
তুমি একদিন
আমার জন্য কাঁদবে,
যেমন আমি
তোমার জন্য কেঁদেছি।
একদিন তোমার
দরকার হবে আমাকে,
আমার যেমন
দরকার ছিলো তোমার।
তুমি যেদিন অপমানিত
অবহেলিত আর
চরম আঘাত পাবে
তোমারই প্রিয়জনের কাছে
সেদিন ঠিক বুঝতে পারবে
কতটা নিঃস্বার্থ
ভালোবেসেছিলেম
আমি তোমায় ;
হ্যাঁ নিঃস্বার্থ ভালোবেসেছিলেম।
কখনও তোমার অসম্মান করিনি
অবজ্ঞা করিনি।
অথচ আমাকে
অসম্মান, অবহেলা- অবজ্ঞাই
করে গেছো তুমি!
একদিন তুমি
আমাকে ভালোবাসবে,
তবে আমি তোমাকে
আর ভালোবাসবো না।
যে হৃদয় জ্বালিয়ে পুড়িয়ে
করে দিলে ছাই,
সেই পোড়া হৃদয়ে কি গো আর
ভালোবাসা যায়?

রুদ্র অয়ন। কবি।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ