আসন্ন কুহু’তে

শ্রাবণী সিংহ
কবিতা
Bengali
আসন্ন কুহু’তে

আসন্ন কুহু’তে

(ক)

সন্ধ্যের দিকে মুরলী ধরে মনোহর–
চুপিচুপি নামছে পাহাড় ও ব্যক্তিগত নিশাচর। অনুভূমিক রেখায়…
নিচু নিসর্গের সমতল।
উঠে আসছে উচ্চকিত সুরে গ্রাম্য মাদল।

(খ)

ভাঙা খঞ্জরের মত এভাবেই ভেঙে বসতে যদি বুকে…

যুক্তবর্ণ ভেঙে ভেঙে বলা নেপথ্যপ্রস্তাব

মেঘের ভিতরে বজ্রলীন প্রমাদ ভেঙে ভেঙে
সব ঘনঘটা এখনও
আমারই দিকে …

কেঁপে কেঁপে উঠি প্রথম শীতের মতই

যাবতীয় অভিমান ভেঙে চুরচুর হত যদি আসন্ন কুহু’তে

যেতে যেতে

মুক্তির জাবেদা নিয়ে উড়ে যাওয়া অসংখ্য পাখ-পাখালি…

ম্যানগ্রোভের দিকে তাকালে
কেউ ঘাস কিংবা নদী

যেতে যেতে
চোখে চোখ রেখে লিখে যাও উড়ো লিপি
কথা নয় শব্দ নয়
দরজা খুলছিল ভয়।
সান্ধ্য রঙের
বাদলাগন্ধে কিছুটা ক্ষয়,
ক্ষতি নেই কিছু

বাতাসও মুগ্ধ কি মন্ত্রে
না মন্ত্রমুগ্ধতায় বিচরণ করছে জানলো না তো কেউ

 

বসন্ত এলে

বসন্ত এলে পরাজয়ের মরশুম…
ফাগুনে আগুন মুঠোয় ভরাবে কে?
যদি সুগন্ধবাহিত হয়ে আসে বাতাসে নতুন সংক্রমণ?
যদি নোঙর-ছেঁড়া বৃষ্টির মোহ ও ছটায়
প্রকাশঅক্ষম জমিনে লতিয়ে
উঠে পিয়াসী সূর্যমুখীর বীজ

যদি মোহর ভাঙে টিনের চালা বৃষ্টিপাতের শব্দে…
জেগে জেগে শুনবে অনেকে
সুরার পরিবর্তে অতীন্দ্রিয় সে সুর

শ্রাবণী সিংহ। কবি। জন্ম ও নিবাস উত্তর-পূর্ব ভারতের অসম রাজ্যের গুয়াহাটি শহরে।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

প্রতিভাস

প্রতিভাস

স্পষ্টতা অন্ধকারের মতো স্পষ্টতা আলোর মধ্যগগনে নেই। উত্তাপে ঝলসে যাওয়া চোখে শীতলপাটি বিছিয়ে দেয় রাত…..

চিঠি

ক্ষোভ রোদের দোকানি হয়ে, ছুঁয়ে গ্যাছি দূর পরবাস আলোর ক্রেতারা দেখে, শূন্য ঝুলি খালি সর্বনাশ।…..