কাঁটাতার পেরিয়ে

ওয়াহিদার হোসেন
কবিতা
Bengali
কাঁটাতার পেরিয়ে

হেসে উড়িয়ে দিই

মাঝেমধ্যে মনে হয় জীবন টা হেসে উড়িয়ে দিই

এটুকুই তো জীবন!

জীবন থাকবে
জীবনের গোল থাকবে
থাকবে তিনকাঠি

এবং সমালোচক

আমার বউ বলে
“মৃত্যুর পরে কেন সবাই ভালোমানুষ হয়ে যায়?”

ট্রেনে করে

ট্রেনে করে দুজনে চলে যেতে চাই

একবোতল পানি বা জল নেব
ধর্ম নেবনা

ধর্মবড় কাঁটা

ফাহিমকে নেব
মীর কে নেব
নওশিনকে নেব

আর আমাদের যদি ফুটফুটে একটা ছেলে বা মেয়ে হয়
তাকে নেব

ট্রেনে চলতে
চলতে
আমরা তাদের শেখাব
ভালোবাসাই শেষ কথা

শস্যপালনই শেষ কথা

বেঁচে থাকার জন্য
একবোতল জলের মতো
ভালোবাসাও খুব জরুরি।

 

কাঁটাতার পেরিয়ে

ধূম উঠছে

সিগারেট জ্বালিয়ে ভবিষ্যৎ দেখে নিল কেউ

চে গেভেরাও ধূম জ্বালাতেন
বেদম ধূম ধূম

নীল আকাশে ওড়ার স্বপ্ন আমার বহুদিনের

ধূমপান করে কেউ স্বপ্ন বানাতে চাইলে আমার খুব রাগ ওঠে

একদিন পাখি হয়ে কাঁটাতার পেরিয়ে যেতে চাই।

 

অসুখের বাইরে কোথাও যেতে পারিনা 

ওষুধ খেতে ভুলে যাই

ভুলো মন আমার
ভুলো কুকুরের নাম

আমিও মন মেজাজে কুকুর
ইশ্বর আমাকে কুকুরের মতো করে বানিয়েছে

সবসময়ই লেজ নাড়াই
ভালোবাসি

খিদে পেলে কুই কুই কুই করে উঁঠি
অসুখের বাইরে কোথাও যেতে পারিনা।।

ওয়াহিদার হোসেন। কবি। জন্ম ১৯৮৬, ভারতের পশ্চিমবঙ্গরাজ্যের আলিপুরদুয়ার জেলার দক্ষিণ খয়েরবাড়ি রাঙ্গালিবাজনায়। লেখাপড়া করেছেন ইংরেজি সাহিত্যে। পেশাগত জীবনে তিনি একজন শিক্ষক। চাকরি করছেন ডুয়ার্সের এক প্রত্যন্ত চা বাগানের প্রাথমিক স্কুলে। প্রকাশিত বই: 'মধ্যরাতের দোজখ যাপন' (কাব্যগ্রন্থ, ২০১৩) এবং 'পরিন্দা' (কাব্যগ্রন্থ,...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ