কাকন রেজা’র কবিতা

কাকন রেজা
কবিতা
Bengali
কাকন রেজা’র কবিতা

শিরোনামহীন

অসুস্থতা ভর করেছে মনেও
ক্রুদ্ধ শরীর রুদ্ধ হলো উত্তাপে;
মন ভোলানো কথার কথকতা
তুলে রাখো গোপন কোনো সন্তাপে।

থার্মোমিটার জ্বর মেপে দেয় দারুণ
বলছি এবার ছাড়ুন;
অনেক হলো পারদ ছুঁয়ে দেখা
তারচেয়ে চলুন দেখি,
কীভাবে যায় অ্যানাটমিটা শেখা।

চোখ দুটো আজ জবার মতন লাল
অনেকে বলেন তাপে;
ভুল আলাপে দোর খোলে না ভাই
থাকলে চাবি ভুল তালাটার খাপে।

জানি, লিখছি খানিক ভুলভাল আর
আঁকছি ভুলের ক্যানভাসে,
জ্বরের ঘোরে আকাশ লিখে দেখি
মেঘ ঘিরে তার মুখ ভাসে!

মাথায় তখন জলের ছোঁয়া দারুণ
বৃষ্টি ভেজায় শহরটা তার একা,
কষ্ট ভেজা জ্বর বলে যায় শোকে
আর হবে না তোমার সাথে দেখা।

মনস্তাপের কাব্য

জ্বর কি তুমি, বুঝি দেহের উত্তাপে
পাপ, অভিশাপ সাথে মনস্তাপে

জ্বর বাড়ে, দীর্ঘশ্বাসের শ্বাসে সন্তাপ
ফুল হয়ে ওঠে ঝড়, ভালোবাসা মনস্তাপ

দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে আসে, মনস্তাপে নয়
ঝড় আর ঘোরের ফেরে মেঘেরা বৃষ্টি হয়

ঘোর নিয়ে লিখি অঘোরের পদ্য এক
মনস্তাপে স্রোতেরা ভাসে, সদ্য-সাবেক

উত্তাপ প্রয়োজন ভুলে যেতে একান্ত পাপ
মনস্তাপ জুড়ে বাজে ফেরানোর অনুতাপ

জ্বর সেরে গেলে কেটে যাবে মনস্তাপ সাথে ঘোর
হবে না বলা, পাপ ও অভিশাপ ছিলো খুব প্রিয় মোর

দেয়ালে দৃশ্যচিত্র ভাসে ক্যানভাসে যার ছাপ
বিভ্রমে দুজন বিভক্ত হয়, পাপ ও মনস্তাপ

মনস্তাপের কথা থাক পাপেদের কথা হোক
অভিশাপ দিয়ে ঘিরি খুব আমার আনন্দলোক

নাগরিক কাব্য

কতটা এসেছে কাছে, কতটুকু গেছে দূরে
শহর ঘুরেছে একা নাগরিক ভবঘুরে

শহরের কান্না শুনি, রাতের হাসিতে বাজে
নাগরের হাত ধরে নগরীরা আজ সাজে

বাউণ্ডুলে যে শহর যুবকের পায়ে হাঁটে
রাস্তা ফুরায় না তবু তুমিহীন তল্লাটে

নগরের গলি জুড়ে জোছনা ছড়ায় ধাঁধা
নাগরের কালো চাঁদ ডলারের সাথে বাঁধা

শহুরে গোলাপ ফোটে আধ ডলারের দামে
রাধাদের কিনে নেয় নাগরিক কোনো শামে

নাগরিক মানে হলো চাঁদ দিয়ে রাত নেবে
শহরের কোলাহল ফুরায় আঁধারের উৎসবে

পাখি বিষয়ক

উড়ে যাও দূরে যাও পাখি
আমিও পথে পা রাখি

হায় পাখি, পেয়েছো দারুণ ডানা
মানুষের ওড়া মানা

কাকে রেখে আসো একেলা শীতের পাখি
বলো, নিজের নিয়তি জেনে রাখি

পাখি, তোমার পালকে লিখি নিষিদ্ধ তাবিজ
স্বপনের গাছ, মাটি ফুঁড়ে যার বীজ

পাখি উড়ে যায়, পাখিরা যে প্রেম
ফেলে যাওয়া পালকে ঠিক জানলেম

কাকন রেজা। লেখক, প্রাবন্ধিক ও সাংবাদিক। জন্ম ১৯৬৮ খ্রিস্টাব্দের ৬ মার্চ, বাংলাদেশে, ঢাকার উত্তর শাহজাহানপুরে। তারুণ্যের দিনগুলো পাড়ি দিয়েছেন লেখকের নিজ জেলাশহর শেরপুরে। তাঁর বাবা মরহুম আব্দুর রেজ্জাক ছিলেন, একাধারে লেখক, সাংবাদিক ও রাজনীতিক। মা জাহানারা রেজ্জাক এক সময়ে ছিলেন...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

ফেরা

ফেরা

ফেরা অনেক দিন আসিনি তোমার চোখের কোণে, বুকের পাশে, নিঃশ্বাসের চারপাশে। ভেবো না আমি পথ…..