কাশ্মীর

আশিস ভৌমিক
কবিতা
Bengali
কাশ্মীর

ধর্ষকাম

স্পর্ধা ছুঁয়েছে আকাশ
চেয়েছ সঙ্গমসুখ বারুদের স্তূপে।
মন ছুঁয়ে দেখেছ কখনও শরীরের আগে।
জেনে রেখো , রতিরও ক্লান্তি থাকে
জেগে ওঠে নিশাচর!
খুঁজে দেখেছ? কোথায় লুকোন কোহিনুর
নারীর হৃদয়!
কি পাবে তুমি! শুধুই শরীর।

হায়রে সোনার সীতা!
তোর অর্ধেক কেড়েছে রাবণ
বাকি অর্ধেক রাম।
শুধু মাটিই দিয়েছে তোকে অন্তিম সম্মান।

 

কাল

এরা ইতিহাস জানে না
কিংবা ভয় পায়
দেখেছে প্রেতাত্মার উলঙ্গ রূপ
কুটিল সংলাপ।
এরা ইতিহাস মানে না
দেখেছে অতীত ক্ষত
প্রসারিত লোলজিহ্বা
সর্বগ্রাসী ক্ষিদা,
দগ্ধে দগ্ধে যা আজও পোড়ায়।
এরা ইতিহাস মুছে ফেলে
অতৃপ্ত আত্মার ছায়া ঢেকে ফেলে আকাশ
অতীত অন্ধকার ফুঁড়ে বেড়িয়ে আসে
নগ্ন দুটি হাত
ওরা পিণ্ড চায় পিণ্ড!
পোড়া মাংসের উপাচার।

 

কাশ্মীর

বরফের গায়ে রক্তের ছিটে
ঠিকানা খুঁজিছে জন্মের ভিটে
রাস্তাতো সাদা নয়!

জঙ্গি রক্ত, সেনার রক্ত জমা নিয়ে বুকে
রাজনীতির দাবা চলে চেনা ছকে
শান্তি চুক্তি লাশ।

জন্মই যার কুমারী মায়ের পেটে
বেওয়ারিশ ভূমি চাপা বেয়নেটে
প্রতিবেশী ফিসফাস।

কারও কাছে মানি এটি স্বর্গ ভূমি
আদপে বিদেশি ধন
কারও কাছে হায় ভাবাবেগ ধায়
গোপন আগ্রাসন।

আশিস ভৌমিক। কবি ও শিক্ষক।  জন্ম ৫ এপ্রিল ১৯৭৪ খ্রিস্টাব্দ; ভারতবর্ষের পশ্চিমবঙ্গরাজ্যের পূর্ব মেদিনীপুর। সুরেন্দ্রনাথ কলেজ থেকে রসায়ন শাস্ত্রে স্নাতক। শিক্ষকতার ফাঁকে ফাঁকে সাহিত্য চর্চা। প্রকাশিত বই: 'কবিতা জন্ম' (কাব্যগ্রন্থ)।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..