ছায়াপথ

প্রিয়াঙ্কা ভুঁইয়া
কবিতা
Bengali
ছায়াপথ

ছায়াপথ

কতটা ছায়াপথ শব্দরেখা ধরে হাঁটলে কবিতায় পৌঁছোনো যায়?
কতটা ধারাপাত শহরের ছাইচাপা আগুনের দহনজ্বালা মেটায়?
প্রশ্রয়ভিখারী মনের আস্কারার অন্তিম বিন্দুটার অস্তিত্ব কোথায়?
ঠিক কতটা উন্মাদনা জড়িয়ে থাকে বহু প্রতীক্ষিত বৃষ্টিফোঁটায়?

ট্রাফিকের ক্যাকোফনিতে শহরের ক্যানভাসে যুক্তিতর্ক অবান্তর,
দিনশেষে ভুলতে চাওয়া অভ্যেসরা তো ভালোবাসারই নামান্তর;
কালি ও কলমের খেলায় কবির স্বপ্নেরা মাতে একমুঠো আশায়,
পোশাকি ছদ্মনামেই লেখনী বাঁচুক কাব্যধারার চিরন্তন ভাষায়।

জীবনস্রোতের উজান ধারায় নিত্যনতুন চরিত্রদের আনাগোনা,
অজুহাতের ভাঁটায় নিখোঁজ যারা, সত্যিই কী তারা খুব অচেনা?
বিপ্রতীপ চাওয়া-পাওয়ার উল্টোস্রোতই জীবনতরীর অন্তরায়,
স্বরলিপিরা প্রতি মুহূর্তে যায় হারিয়ে জ্বলন্ত আলোকবর্তিকায়।।

 

রোদ্দুর মাখুক ইচ্ছেগুলো

ইচ্ছেগুলো আজ শুধু মানিয়ে নেওয়ার কারাগারে বন্দী,
বোঝাপড়া করে নির্দ্বিধায় আজ নিয়েছে সবকিছু মেনে,
অধরা স্বপ্নের মতো এভাবেই একদিন হারিয়ে যাবে ওরা,
ইচ্ছেনদী মাঝপথেই ফেলবে হারিয়ে তার উদ্দাম গতি;
শুকনো অস্তিত্বহীন বৃত্তের বাইরে বেরোবে তারা কবে?
প্রতিবন্ধকতাহীন নীল সামিয়ানায় কবে ডানা মেলবে?

সংরক্ষণ মানসিকতায় নিজেকে আবদ্ধ রেখো না আর,
ইচ্ছেগুলো রেললাইনের পাতের মতোই হোক সমান্তরাল;
হেঁটে যাও আঁকাবাঁকা রৌদ্রের আলপথে স্বপ্নের গলিতে,
ইচ্ছেগুলো সবুজ পাতার সঙ্গী হয়ে ভিজুক শ্রাবণধারায়,
হলদে দুপুরে কার্নিস ছোঁয়া রোদ্দুর মাখুক তারা গায়ে,
মুখরতার প্লাবন উঠুক আজ চুপকথাদের মৌন অধ্যায়ে।।

 

আগলে রেখেও

আগলে রেখেও আদপে আঁকড়ে রাখা যায় না কিছু,
বিসর্জনের বাদ্যি বাজে আবহমান সময়ের পিছু পিছু;
পরিবর্তনের স্রোতে একে একে সকলই চলে যায় ভেসে,
থেকে যায় ফ্ল্যাশব্যাকের পুরোনো স্মৃতি ব্যস্ত দিনশেষে;
সম্পর্কগুলো থমকে যায়, মুখ ঢাকে মিথ্যে অঙ্গীকারে,
তবু কোকিলের কুহুতানে বসন্তোৎসব ফেরে বারেবারে।
বৃষ্টিমুখর শ্রাবণ যখন ভেজায় অলিগলি অঝোর ধারায়,
অভিসারী মন সুখ খুঁজে নেয় শুধুই তোমার কিনারায়;
দহনবেলায় পুড়েছে মন, বেলাশেষে অতৃপ্তিটুকু রবেই,
জেনো, সময় ফুরোলে হিসেবের খাতা বেহিসেবি হবেই;
আগলে রাখা প্রাণপাখি জীবনপিঞ্জরকে দেয় ফাঁকি,
কালের গ্রাস যায় না ঠেকানো, আমরাই আগলে রাখি।।

যতই বলো

যতই বলো, ভুলেই যাবে, তবু কিন্তু থাকবে রেশ,
পড়বে ধুলো, শুধু রয়ে যাবে অবয়ব অনিঃশেষ;
সমাজ-চিতায় পুড়ছে মন, আবেগগুলো বেনামী,
মনের শবদেহে শরীরী অসুখ চিরকাল ঊর্ধ্বগামী।

নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনে প্রেম, মেয়াদ যে ফুরোয়,
যতই বলো একঘেয়েমি, স্মৃতিরাই শ্রান্তি জুড়োয়;
ক্ষণিকের অতিথির চিরতরে থেকে যাওয়া মানা,
কাটাকুটির হিসেব-নিকেশ দিনশেষে গন্ডি-টানা।।

প্রিয়াঙ্কা ভুঁইয়া। কবি। জন্ম এবং বেড়ে ওঠা শহর কলকাতার বুকে। বর্তমান নিবাস কলকাতা। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাণীবিদ্যায় স্নাতক। পেশাগতভাবে পূর্ব রেলওয়েতে কর্মরত, নেশাগতভাবে লেখালেখির সঙ্গে যুক্ত। অবসরে বই পড়া, বেড়ানো, ফটোগ্রাফি, আবৃত্তি করা, বাগ্মিতা, গিটারের তারে সুর তোলা, গান শোনা,...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

ফেরা

ফেরা

ফেরা অনেক দিন আসিনি তোমার চোখের কোণে, বুকের পাশে, নিঃশ্বাসের চারপাশে। ভেবো না আমি পথ…..