ডাকাতের গল্প

যাদব দত্ত
কবিতা
Bengali
ডাকাতের গল্প

ডাকাতের গল্প

শুধু পুব আর পুব
কালো সুতো ফেলে বাঁ পা ফেলছে
বড়ো বড়ো চোখের চালতা গাছ মাথা ফেলছে
সরু দড়ির কানাঘুষো কুয়ো কোথায় গেল
বনমালীর জলের সাথে তৎপরতা কোথায় গেল

ডাকাতের গল্প অনেক সেদ্ধ হয়েছে
গাড়োয়ানকে বলেছি পাতালের ধান চাষ নিয়ে
চলতে চলতে গরুর সাথে গল্প বুনো
আমি ধোঁয়া ওঠা কানের লতিতে বাস করি
সদাই ধেয়ানে চোখের গোড়ায় জল দিই
সাইকেলের পিছনে নদী হাটের মাঝামাঝি বাজাই
পরিস্কার রাস্তাতে হাতে হাত রাখে সচ্চা মেঘ
প্রতিদিন দৃষ্টি হাতে বৃষ্টি রাখবে হয় না
পায়ের ওপর পা রেখে বাঁশির সুর রান্না উল্টে দেয়
কে ডুব সাঁতার পুঁতবে দীঘিকে আঁকড়ে ধরার
জেগে ওঠা রচরচে চর হাসিত ব্যায়ামে দাঁড়াও
শিউরে ওঠা সমুদ্র মিষ্টি সেলাই ফেলছে

 

পাঠ

যোগাযোগের আমের মুকুলগুলি
যেভাবে ধরে রেখেছে লালসাদা আঁকড়ি
মোচা ছলকানো জলের বুক
এই প্রার্থনাকে ধরে রাখতে পারতো না কাহিনী
সবই হতো যদি গাছের কাছে ফুল ফল চাইতাম
বুকভরা চতুর্সীমায় একটু জীবনী
স্নানের পর কতই না ঝকমক করতো পালাগান
পালাবদলের আনাগোনা সইতে হবে জেনেও
ঝুটমুট একমুঠো ডগার জীবনও অনেক হতো
পাতায় সেই সবুজের আঁচ
জ্যান্ত পথিকের কোলটানা ছায়া

 

তবু আজও বলি সে সেদিন
বিপ্রতীপ হলেও ছায়া আড় বৃষ্টিতে কেঁপেছিল
ঐ বই থেকে নেমেছিল উদ্বাহু জ্ঞান
বিব্রত ফসলগুলি কাটা হয়নি
তাদের আজও বেজে যেতে দেখি
গান্ধর্ব নৌকার জালে
বুকটানা চোখটানা পাঠ

 

টুকটুকে

উড়ে যাওয়া রোদের পর
পেয়ারা গাছ বৃষ্টি সহ্য করে যাচ্ছে
কিন্তু টের পাইনা রাতের পর কি হবে
সকালে আগে দেখি
লাউডগার চোখ কতটা এগিয়ে এসেছে
স্প্রে করে দিলে বড় হবে বিয়ের দিন
                                 . এগিয়ে আসবে
লেখার মতো লেখাকে সেজন্য বাহবা দিই
অন্যকে খাইয়ে তার বড়ো বড়ো
                          .  চোখ দেখার অভ্যাস
কবিতাতে কেন ডুবে গেল সেই পথহারা
এই আমগাছের দুটো হাত অনেক দরোজা
নড়াচড়ায় তার বিবেকি ছায়া গায়ে মেখে নিতাম
প্রথম ভালোবাসাকে বুড়ো আঙুল
                      . দেখাতে পারেনা কলাগাছ
স্নানটা যদি শুদ্ধ হয় ফুরফুরে উড়ন্ত চুল তার গড়ন
সেই সব টুকরো টুকরো মেঘগুলোকে
দিয়েই বৃষ্টি বানানোই কবিতা
লালবাঁধ নীলজল দুজনের মধ্যে বোঝা পড়াটাই
আমাদের মেয়ে স্কুলেযাচ্ছে আধো আধো বয়ান
ক্ষিদে শরীরের ; কিন্তু
আমাদের স্নান কোন গজদন্তে সুচিন্তার বিষয়
আমগাছের যখন অনেক জানালা
টুকটুকে একটা পথও আছে চোখের
                        .      কড়িবর্গার ভেতর

যাদব দত্ত। কবি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। জন্ম ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। বর্তমানে ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুরে নিবাস। জনাব দত্তের পেশা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা। কোলহান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় প্রধান। কুড়ি বছর ধরে সম্পাদনা করছেন ছোট কাগজ 'বৈরী'। প্রকাশিত গ্রন্থ ছয়টি। 'এসেছি অসময়ে' (কাব্যগ্রন্থ, কৌরব প্রকাশনী), 'তরল পাখি' (কাব্যগ্রন্থ, বৈরী প্রকাশনী), 'শ্রীমতী মেররিড্রাইভ' (কাব্যগ্রন্থ,...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..