ডিসেম্বরের গোলাপ

রিকেল
কবিতা
Bengali
ডিসেম্বরের গোলাপ

অবহেলা তোমাকে ছোঁবে না

ভালোবাসার অবহেলা তোমাকে ছোঁবে না, তুমি সুন্দর
তুমি সকলের আকাঙ্ক্ষা, তোমাকে পাবে না দুঃখ
তোমার পায়ে পায়ে হাঁটবে অনেকের পা, এক পায়ের নির্জনতা তোমাকে পাবে না
ক্যালেন্ডারের প্রতিটা দিন তোমাকে মেসেজ পাঠাবে
যেন সারাটা জীবন ত্রিশে জানুয়ারি
প্রেমহীনতার বিকেল তোমাকে স্পর্শ করবে না
প্রতিটা সকাল তোমাকে নিমন্ত্রণ জানাবে তুমি যেন রোদের বাড়ি বেড়াতে আসো;

কক্সবাজার তোমার জন্য একলা একা দাঁড়িয়ে থাকবে তুমি কবে তার শরীরে পা ডোবাবে তার জন্য
কলেজ পথের লোকাল বাসগুলো তোমাকে বসার জায়গা করে দেবে
দাঁড়িয়ে যাবার গল্প তোমার থাকবে না
সকল প্রেমিকের সাম্রাজ্যে তোমার আধিপত্য, অমর্যাদার কণ্ঠ তুমি শুনবে না
পৃথিবীর সকল ভাষা তোমার নাম আদর করে ডাকবে অনাদর তুমি চিনবে না

প্রত্যাখ্যান

কবিতার কাছে যেতে হলে
মানুষের কাছাকাছি যেতে হয় আমাকে
মানুষের কাছে যেতে হলে
ফুল পাখি মাটির কাছাকাছি যেতে হয় আগে
তার আগে যেতে হয় নারীর কাছে
যে আমাকে প্রত্যাখ্যানের অসুখ দেবে

ডিসেম্বরের গোলাপ

ডিসেম্বরের গোলাপ, তোমাদের কথা মনে পড়ে
তোমরা তখন ফুলের দোকানে ফুলদানিতে অনেকগুলো
আমি কেবল চারটে নিলেম হাতের মুঠোয়
ক’টাকা দাম আমার এখন মনে নেই
গোপন মানুষ অনেক দূরে ভিড়ের মাঝে একলা থাকে
তার জন্যে
তার শহরে পাহাড় ঘুমোয় এক বালিশে তাহার পাশে
ঘরের পাশে ধানের বন; পথ জুড়ে সে অনেক নদী
তবুও সে শীতের পাশে কেমন করে বাঁচে
কার আঙুলে রাস্তা পেরোয়
কার চোখেতে ভাসে?

ওগো শরত, অশুদ্ধতার মিছিল দেখে তার ঘুম ভেঙে যায় চমকে
কোন জনমে কাহার ছিলাম প্রশ্ন করে মাকে?
তবুও সে আলোর পাখি একটি সুরে ভালোবাসা গায়
তোমারা এখন রং হারানো টাটকা স্মৃতি
নিজের ভেতর আমার কণ্ঠ পায়?

শেষ বিরহ

প্রিয় তুমি হেসো
হৃদ জলে ভেসো
অভিমান ভুলে গিয়ে ফের ভালোবেসো
ঘর নয় আকাশ নয় তুমি আমার
গোপন দুঃখ হয়ে এসো
ভালোবেসো ভালোবেসো ভালোবেসো

আর দূরে নয়
এই নাও হৃদয়
মিছে লাজ দূরে রেখে বুকের কাছে এসো
রোদ নয় ঘাস নয় তুমি আমার
নিকট নবান্ন হয়ে এসো
ভালোবেসো ভালোবেসো ভালোবেসো

এই ধরো হাত
ছুঁড়ে ভুলভাল আঘাত
শীতের পাশে তুমি আমার রোদ্দুর হয়ে বসো
মাটি নয় গাছ নয় তুমি আমার
শেষ বিরহ হয়ে এসো
ভালোবেসো ভালোবেসো ভালোবেসো

বিদায়

চলে যাচ্ছি
রেখে যাচ্ছি তোমাকে
তোমাদের আম গাছ
আর আমাকে

চলে যাচ্ছো
রেখে যাচ্ছো আমাকে
আমাদের ফুল পাখি
আর তোমাকে

রিকেল। কবি। জন্ম ৬ ডিসেম্বর ১৯৯৪, বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার মহেশখালীতে। লেখাপড়া করেছেন একাউন্টিং-এ স্নাতকোত্তর। বর্তমানে লেখালিখি ব্যতীত কিছুই করছেন না। প্রকাশিত বই: 'জন্মান্তর' (কাব্যগ্রন্থ, ২০১৮)।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ