তাপসকিরণ রায়ের কবিতা

তাপসকিরণ রায়
কবিতা
তাপসকিরণ রায়ের কবিতা

সম্ভাবনা

কিছু ভাষা সময়কে কেড়ে নিচ্ছে।
তুমি পুরনো পুঁথি খুলে নিলে
পুঁথির পাতা ধরে কত দূর না হেঁটে গেছো।
ওদের হাঁটার কথাও তুমি লিখেছ
আর এই ভাবে আরও সম্ভাবনারা জন্ম নিচ্ছিল।

 

ব্যাতিক্রমী

বীজপুঁই থেকে একটা ব্যতিক্রমী গাছ বেরিয়ে এলো
ব্যাতিক্ৰমী বলে সে মূল্যবান।

 

শেয়াল কাঁটা

শেয়াল কাঁটার বনে তুমি অনধিকার ঢুকে প্রহর প্রহর ডেকে উঠলে
শ্রেণী বিভেদ ভুলতে তুমি গায়ে একটা কালো শার্ট ঝুলিয়ে নিলে
গরুর মাংস খেয়ে নিয়ে দেখলে তুমি একটুও পাল্টায়নি !

 

রঙ

গোলাপের কাঁটায় তোমার যখন রক্তপাত হল
তুমি বুঝতে পারেনি যে সে লাল গোলাপেরই রঙ ছিল।

 

ঘ্রাণ

কিছুটা ঘ্রাণ নিয়ে তুমি
জাগ্রত হয়ে উঠলে
এক মুঠো আঁধার ধরে নিলে
আর তুমি উন্মত্ত হয়ে মাটিতে নেমে এলে
যেখানে শ্মশান ও জন্মভূমি একই জাগায় ঠেকে আছে।

তাপসকিরণ রায়। পিতা- স্বর্গীয় শৈলেশ চন্দ্র রায়। মাতা- শ্রীমতী বেলা রায়। জন্ম- ১৯৫০ সালের এপ্রিলে বাংলাদেশের ঢাকায়। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের প্রকাশনা সংস্থা কৃত্তিবাস প্রকাশনী থেকে লেখকের প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ- 'চৈত্রের খরায় নগ্ন বাঁশির আলাপ'। উদার আকাশ প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত লেখকের দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ-...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..