তালা খোলার কারিগর

মোহাম্মদ ইকবাল
কবিতা
Bengali
তালা খোলার কারিগর

শবযাত্রা

বেঁচে থাকার দীর্ঘ পথ অতিক্রম করে করে বারবারই মরে যাই।
বিষাদের হেমলকে ডুবে থাকা শবদেহে লোবানের গন্ধ ছড়ায় আজন্ম অতৃপ্তির ছোবল।
কফিন জড়িয়ে থাকে উলঙ্গ আলোকধারা,
লৌকিক ফুলে বাহার।
নৈঃশব্দের সিঁড়ি ভাঙে শবযাত্রার পদধ্বনি
নক্ষত্র আলোয় দেবালয়ে নিরাকার জানাজা।
দূরে স্বজনের নিষ্পলক চোখে ফোটে পাথরের ফুল
বিদায় সিম্ফনির নগ্ন মাতমে বাজে মগ্ন স্মৃতির শানাই
সুখাবহ বাতাসে পুড়ে ভালোবাসার চৌকাঠ
পুড়ে পালঙ্ক, পুড়ে বিশ্বাস
চিতার দহনের বিষণ্ণ চন্দন সম পুড়ে হৃৎ…

 

তালা খোলার কারিগর

আমি নিছক একজন তালা খোলার কারিগর
তালা খুলতে ভেঙে ফেলেছি কতশত চাবি
মাস্টার চাবিটি কখন খুইয়েছি স্মরণে আসছেনা

এরপর থেকে তালা খুলতে আর কখনও চাবি ব্যাবহার করিনি
পৃথিবীর জটিল সব কম্বিনেশন লকে কান পেতে শব্দের অনুরণন মেপে মেপেই তালা খুলি
যদি সব কটি পথ বন্ধ হয়ে যায়
ঠোঁট ঠোঁট ঘষো,
তালা খুলে যাবে,
একের পর এক,
এবং তা খুলে যাবে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই…

 

স্পর্শ

ভালোবাসা খুঁজে পেয়েছে ঘর কারো হৃদয়ে
হৃদয়ের খুঁজে শরীর ভূগোলের নদী নালা বিল চড়াই-উতরাই পার হয়ে যখন পৌঁছি উদাম বুকের উপত্যকায়
দেখি সামনে বিস্তীর্ণ অহল্যাভূমি,
চিরতৃষ্ণার্ত,
চাষ উন্মুখ!
আংগুল ঠোঁট কিংবা যুগপৎ আংগুল ও ঠোঁটের স্পর্শ পেলেই ফুল হয়ে সেখানেই ফুটতে থাকে ভালোবাসা………

 

ভালোবাসা

চোখের সম্মোহনীতে ছিল মদির আমন্ত্রণ
ক্রমাগতই ডুবছি তার অন্তহীন গভীরে
স্বচ্ছ নিস্পাপ চোখের দরজায় প্রাণখোলা আহবান
অমিয় এমন সুখ ভালোবাসার ভাঁজে ভাঁজে?
তুমি দেখিয়ে না দিলে অজানাই থেকে যেতো,
আমি কি জানতাম পৃথিবী এমন দ্যুতিময়?
তোমার ভালোবাসার সমুদ্রে অবাক্ষ ডুবে
আমি হেটে যাই আলোর দিগন্তে
কুড়াতে থাকি ভালোবাসার নুড়ি পাথর হীরা জহরত পান্না

মোহাম্মদ ইকবাল। কবি। জন্ম বাংলাদেশের সিলেট জেলায় হলেও তিনি যুক্তরাজ্যের লন্ডনে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। কবিতা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি সমাজসেবামূলক কাজের সাথে জড়িত। তিনি অংশুমালী'র যুক্তরাজ্য চ্যাপ্টারের সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। প্রকাশিত বই: 'স্রষ্টার শৈল্পিক হাত' (কাব্যগ্রন্থ, ২০১৬), 'নিরংসু...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ