দুষ্প্রাপ্য ফুল

হিমাদ্রী চৌধুরী
কবিতা
Bengali
দুষ্প্রাপ্য ফুল

জলরঙাছবি

আমার আত্মায় জ্বলে উঠা ক্ষণিকালোয় চিরস্থায়ী পাখি উড়ে তৃষ্ণায় ; সঙ্গীত কারুকার্যে
একটি কবিতা মূলত হলুদ রঙ ঠোঁট জুড়ে চুম্বনের শিরা সমূহের বিমুগ্ধ উড়াল — য্যানো জীবন আমার কবিতার জলরঙাছবি বিশেষ।

 

জীবাশ্মে রাঙা ফসিল

এমোন রক্ত আমি দেখিনি ; কখনো ভাবিওনি তুমি রক্তের ভিতর ছুঁয়ে দিবে সুনশান নীল।পল্লবিত এই চিৎকার মঞ্জরি — তুমি কী শুনতে পাচ্ছো আমার রক্তের উল্লাস?

প্রিয়ংবদা আমার, লিখে দিলাম তোমায় আমার মৃত্যুটুকু — মূলত, যা কিছু স্থির সব তার হয়ে যাক ওই সোনালী পালকের জীবাশ্মে রাঙা ফসিল — আমার অহংকারের হীরকখণ্ড এই তপোবন।

 

ছেড়া বর্ণমালা

বিরুদ্ধ এই দেয়ালে খেলা করে ছায়া-শরীর। ক্রমেই জীবন হতে উড়ে যায় নীলকন্ঠ পাখির কবিতা।গ্রীল বন্দী আমার এই হাহাকার য্যানো সবুজের মিছিল হতে মুখ ফিরিয়ে নেয়া অভিশপ্ত পঙক্তিমালা — দৈন্য চাঁদের ছেড়া বর্ণমালায়…

 

দুষ্প্রাপ্য ফুল

আমার বিপুল প্রেমে তুমি হইয়ো না দুষ্প্রাপ্য ফুল।

হিমাদ্রী চৌধুরী। কবি ও শিক্ষার্থী। জন্ম ও বাস বাংলাদেশের ঢাকায়। লেখাপড়া করছেন ইংরেজি সাহিত্যে। তিনি স্বপ্ন দেখেন পৃথিবী হবে ক্ষুধা ও বৈষম্যমুক্ত। তিনি বিশ্বাস করেন, ভুল বোধের প্রাচীর ভেঙে একদিন আলো আসবেই।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..