দেখা হলে হবে

ওয়াহিদার হোসেন
কবিতা
Bengali
দেখা হলে হবে

দেখা হলে হবে

দেখা হলে হবে
নাহলে কি মনখারাপ হবে?

আগের মতো?
অপেক্ষাও মেঘ হত
মেঘের বাড়ি পরিচিত ছিলো
তার ঘরদোর
পড়ার টেবিল

তার শাড়ির ঘ্রাণ
ডাকতো কি শীত?
ডায়নার জলে স্মৃতিও ভাসিয়ে দিই

চামুর্চির পাহাড়ে যদি তোমাকে পাওয়া যেত কিছু প্রিয় প্রশ্ন ছিলো

হবেনা শুধানো?

এক অন্ধ ক্যাকটাস বুকের ভেতরে
জেগে থাকে

আমার হাতের তালুতে কবে যেন হাত রেখে বলেছিলে ভুলে যাবেনা।।

 

আজ তোমাকে দেখলাম

আজ তোমাকে দেখলাম

স্বপ্নে

না পাওয়ার মতো

হলুদ রং

না দেখা রক্তক্ষরণ
ভেতর ভেতর একমাত্র প্রেমিকই জানে

বারবার ভুলের খবর

আমার দু’হাতে ভালোবাসার খুড়েছি কবর

 

দেখা তো তামাশার মতো

কেন দেখা হবে?

দেখা তো তামাশার মতো

তোমার ছেলের চুলের ঘ্রাণ
তোমার মতো নয়

তোমার মেয়ের হাসি
তোমার মতো নয়

তুমিও তোমার মতো নও
তোমাকে একদিন কিশোরবেলায়

শর্ষেখেতের ভেতর নীল রোদে হারিয়ে ফেলেছি

 

মিথ্যে কবিতা মিথ্যে প্রেম

দুহাত জড়ো করে থাকি

হাতের ভেতর কাঁটা ফোটে
তুমি চেনো লাল রং

কয়েকমাইল দূরে
তোমার স্বামী টের পায়?

অন্ধভক্তের মতো হয়তো ভালোবাসার মিথ্যে নাটক করে!

সে আমার মতো ভালোবাসতে পারে?

আমিতো এখনো মতো মধ্যরাতে উঠে তোমাকে খুঁজে দেখি
বুকের গন্ধ পাই

নীল ক্ষত হয়
লাল ক্ষত হয়

বর্ণময় তবু বর্ণহীন….

ওয়াহিদার হোসেন। কবি। জন্ম ১৯৮৬, ভারতের পশ্চিমবঙ্গরাজ্যের আলিপুরদুয়ার জেলার দক্ষিণ খয়েরবাড়ি রাঙ্গালিবাজনায়। লেখাপড়া করেছেন ইংরেজি সাহিত্যে। পেশাগত জীবনে তিনি একজন শিক্ষক। চাকরি করছেন ডুয়ার্সের এক প্রত্যন্ত চা বাগানের প্রাথমিক স্কুলে। প্রকাশিত বই: 'মধ্যরাতের দোজখ যাপন' (কাব্যগ্রন্থ, ২০১৩) এবং 'পরিন্দা' (কাব্যগ্রন্থ,...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..