নবীন প্রজন্মের প্রতি 

মেশকাতুন নাহার
কবিতা
Bengali
নবীন প্রজন্মের প্রতি 
ডিসেম্বর এলেই প্রজন্ম তোমরা বিজয়ের করো উল্লাস,
ওরে নবীন জানো কী তোমরা বাংলাদেশ জন্মের ইতিহাস?
একটা সময় অন্ধকারে ছিল বাংলার ভূখণ্ডের আকাশ,
জানো কী তোমরা কত ত্যাগে স্বাধীন দেশে করছো বসবাস?
কত উৎপীড়ন,কত শোষণ কতই না ছিল যন্ত্রণা,
বাংলা মা যে সহ্য করে নয় মাসের প্রসব বেদনা।
বর্বর বাহিনী বাঙালির  উপর চালায় নৃশংসতা,
এই প্রেক্ষিতেই মুক্তিবাহিনী আওয়াজ তুলে স্বাধীনতা।
স্বতন্ত্র অধিকার ভোগ করছো ত্রিশ লক্ষ জীবনের দামে,
কৃষক, শ্রমিক,ছাত্র জনতা লড়েছিল শহর আর গ্রামে।
পাকবাহিনী হামলা করে পঁচিশ মার্চের কালো রাতে,
স্বাধীনতার জন্যই বীর  বাঙালি অস্ত্র তুলে হাতে।
স্বাধীন ভূমিতে বাস করে বলছো স্বাধীন  ভাষা,
এই স্বাধিকার এনেছে এই দেশেরই মাঝিমাল্লা চাষা।
দাবি আদায়ে যোদ্ধারা তুলে সাহসী উচ্চারণ,
প্রজন্ম তোমরা স্বাধীনতার ইতিবৃত্ত হৃদয়ে রাখবে স্মরণ।
রক্তক্ষয়ী সংগ্রামে লাল সবুজের চিত্র আঁকা
বিশ্ব মানচিত্রে দাঁড়িয়ে আছে আজ আমাদেরই পতাকা।
গাইছো তোমরা শহীদ স্মরণে বিজয় নিয়ে গান,
এই ভালোবাসাতেই বেঁচে থাকবে লাখো শহীদের প্রাণ।

পেশা হিসেবে শিক্ষকতার সাথে জড়িত। কলেজে পড়ান। সমাজকর্ম বিষয়ের প্রভাষক। কর্মসূত্রে থাকেন চাঁদপুর, কচুয়াতে। জন্মস্থান নরসিংদীতে। প্রকাশিত একক কাব্যগ্রন্থ একটি, ‘দীপ্ত আবির্ভাব’। যৌথ প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে, অরণ্যের দিনরাত্রি, বেলা অবেলার গল্পগুচ্ছ, কিছু পরিচিত মুখ ইত্যাদি। মূলত কবিতা লিখেন। গল্পের...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

বেশরম

বেশরম

বেশরম কি কঠিন ছিলো, ডুব সাঁতারের রুদ্ধ দম তোমাকে ভুলেছি ঠিক এক বেশরম- আবার পড়েছি…..

তোমার জন্য

তোমার জন্য

পাষাণের প্রেম বিকট স্তব্ধতায় সুনিপুণ সীমানা প্রাচীর তুলেছ, বেসামাল ভালোবাসার জাগতিক জায়নামাজে। প্রার্থনার গতিরোধ করো…..