বৃত্ত

দিব্যেন্দু ঘোষ
কবিতা
Bengali
বৃত্ত

বৃত্ত

চুপ করো, ডেকো না আর
আমাকে ঘুমাতে দাও

তুমি জানো না
আমি ঘুমের মধ্যে কবিতা লিখি?

একথা পাগল জানে!

যাও তাকে জিজ্ঞাসা করো
আমি কখন ঘুম থেকে উঠি

দাঁড়াও, যেও না
চারপাশে কুয়াশা আর অন্ধকার

তুমি বরং বৃত্ত হও
চেষ্টা করো নিজেই নিজেকে ছুঁয়ে ফেলার

সফল হলেই তোমাকে ছুঁয়ে ফেলবে
আলো, হাওয়া, জল

তারপর তুমি নিজেই এক নতুন পৃথিবী…

 

নিষ্ফল

সব রাত লিখে দিয়েছি
পাখিদের নামে গতকাল সন্ধ্যায়৷

সব ভাত ভোরের আলোয়
রেখে এলাম পাগলের দরজায়৷

পৃথিবী সুন্দর!

সব মদ পা-বেয়ে নিচে নেমে এলো
যেন কবিতা ভেসে যায়…

 

পথভোলা

আকাশের চাঁদ আল্পনার মতো বেঁকে যাচ্ছে
ক্রমশ ফুরিয়ে আসছে জ্যোৎস্না-জল ও পূর্ণিমা

আলো কিছুতেই নামছে না মাটিতে কিংবা সমতলে আরও তীক্ষ্ম ও রহস্যময় হয়ে উঠছে পর্বতের চূড়া

চাষের জমির ফাটলের ভিতর
পড়ে আছে– শুধু সাদা… শুধু সাদা…

আমাদের কোনও দোষ নেই, মানবতা

আমরা পথ ভুলে দু’হাতে জ্বলন্ত মশাল নিয়ে ছুটছি
গভীর অরণ্য ভেদ ক’রে শকুনের বাসার দিকে…

 

নিবেদন

গতকাল রাতের আকাশে
কোনও তারা ছিল না

জেগেছিল গুটিকয়েক জোনাক পোকা

আজ সারাদিন সূর্য ওঠেনি
পাগলের কাছে আগামীকালও অনিশ্চিত

এবার চোখ খোলো গান্ধারী

আমি পুড়ে যাব নিশ্চিত জানি
তবুত্ত আজ তোমাকে বলে যাব

জন্ম ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সীমান্ত শহর বনগাঁতে৷ সাইকেল নিয়ে দেশ বিদেশের পাহাড় জঙ্গল ঘুরতে ভালোবাসেন৷ কবিতা তার প্রধান হাতিয়ার৷ প্রকাশিত বইঃ ‘ঈশ্বর জীবিত নদী’(কাব্যগ্রন্থ, প্রথম প্রকাশ ২০২১, দ্বিতীয় মুদ্রণ ২০২৩)

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..