ভালবাসার বাড়িঘর

বদরুদ্দোজা শেখু
কবিতা
Bengali
ভালবাসার বাড়িঘর

বিরল ভাস্কর্য হ’য়ে

বুকেপিঠে লাল তিল নন্দিত নধর
বিমিশ্র স্মিত হাসির ওষ্ঠ অধর
আলুথালু কেশরাশি উড়ন্ত পিক
এঁকে দ্যায় চোখে চোখে বসন্ত প্রতীক
আলপনা অনুরাগ গহন গহীন,
চেয়ে থাকি পাশেপাশে মুগ্ধ আলাদীন;

লাতিন কি চীনা এই সুন্দরী এই
জগতের মৃগনাভি কস্তুরী হবেই
কী -বা আসে যায় তার দেশ কুল জাত
নিয়ে বৃথা প্রশ্ন করি, হৃদি-সওগাত
মাথা নত ক’রে আছে আলেয়ার কাছে ,
ভালবাসা মোমবাতি-আলো হ’য়ে নাচে ।

কাছে টানি বুকে টানি জড়ায়ে দু’হাত ,
হৃদয়-সায়রে উঠে তরঙ্গ-প্রপাত
আঁখি মুদে’ দ্যাখে যেন আমুদে ঈপ্সায়
সাগর-অবগাহনে কতো সুখ ছায়
অন্তরে বাহিরে আর উচাটন মনে,
বিরল ভাস্কর্য হ’য়ে ফুটেছি দু’জনে – –

 

ভালবাসার কাছেই হারা

মনভুলানো অভিনয় নয়,নয় উপহার আতরদানি
মনে প্রাণেই চেয়েছি তাকে করতে আমার হৃদয়রাণী,
পেরেশানির প্রহর যতো ভয় সংশয় হতোদ্যম
মধুর বিধুর প্রতীক্ষা আর পথ চাওয়ার পণ্ডশ্রম
সার করেছি ম্লান হাসিতে, প্রাণ-বাঁশিতে নিশীথপুর
বাজিয়ে গেছে মিলন-মদির করুণ অরুণ মিশ্রসুর,
দূর থেকে আজ সেসব স্মৃতি রীতিনীতির তুচ্ছজ্ঞান
ক্যামন যেন উন্মাতালের কার্যকলাপ নেশার ধ্যান
আনন্দ আর উন্মাদনা জয় পরাজয় একাক্কার
তার হাসিতে আমার হাসি, দায়-দুখভার দু’জনার
আর কী-এমন যাদু আছে মধু আছে আপনহর
ভালবাসায় কাঁদাহাসায় অবিচ্ছেদ্য পরস্পর?
এই হৃদয়ে সেই প্রণয়ের সার্থকতার শিহর পুষি
ভালবাসার কাছেই হারা সবচেয়ে সুখ সবচে’ খুশী ।।

 

ভালবাসার বাড়িঘর

ভালবাসার কাছেই হৃদয় রেখেছি বন্ধক
হয়তো হেরে যাওয়াই যেন ভালবাসার শখ ,
হৃদয়টা তো ছোট্ট তবু জানলাগুলো বড়ো
জানলাটাতে আকাশ মাটি সাগর মরু জড়ো
বৃষ্টি পেয়ে ফনফনিয়ে ঘাসের আলিম্পন
ঘন উচ্ছ্বাস শরীর জুড়ে মাঠের শিহরণ
নীল আকাশে মেঘের রুমাল , আঁধার আকাশ ভরা
চাঁদের সভা তারার বাহার ,হয়তো বসুন্ধরা
এসব গয়নায় গরবী সাজে , সাগরে দূর দূর
দেয়ালিগুলো দ্রবীভূত ,কাঁচের জলনূপুর
ছড়িয়ে যায় হৃদয়পুরে সেখানে বালিয়াড়ি
ভিজতে থাকে ভিজতে থাকে , ভালবাসার বাড়ি
রচিত হয় আনন্দময় , পরাবাস্তব রোদে
হৃদয় সেঁকি, হয়তো হারি, বাঁচি মধুর অব্যক্ত বোধে ।।

 

অকারণ

অকারণ শঙ্কা করি, অকারণ উৎকন্ঠা
অজানা কোন্ দুশ্চিন্তায় সিঁটিয়ে থাকে মনটা
জীবনটা তো চোরাবালির উপর দিয়ে দৌড়
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সূঁচ সুতোতে নকশি কাঁথার ফোঁড়,
ঘোর পিয়াসায় হাত ধরেছি, হয়তো অঙ্গীকার
করেছি বটে, নয় অভিনয়, উদারতার ধার
কম কিছু নয়, নিশ্চয় এতেই জয় করতে পারি
ভালবাসার মতন কিছু ফুলের তরবারি
যা সব নিষেধকে তুচ্ছ করে,উচ্চ করে মন
অন্তরতলে প্রাণিত করে ভাবের বৃন্দাবন,
ক্ষণ অণুক্ষণ আস্থা তখন দ্বীপের মতো জাগে
ডামাডোলের এই সমুদ্রে অরুণ কিরণ -রাগে,
ভয় সংশয় শঙ্কা তখন প্রসন্নতার বাঁকে
উজিয়ে যায় যমুনা-ধারায় আনন্দের ঝাঁকে,
থাকে— থাকে,হৃদয়ে থাকে প্রেমের বরাভয়
ভুল অকারণ বিষণ্ণতার বিরোধী প্রত্যয় ।।

বদরুদ্দোজা শেখু। কবি। জন্ম ১৯৫৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে, ভারতের পশ্চিমবঙ্গরাজ্যের মুর্শিদাবাদ জেলার সাগরদিঘিতে। অভাব অনটনের মধ্যে তাঁর বেড়ে উঠা। প্রথাগত শিক্ষায় স্নাতকোত্তর। পেশায় অবসরপ্রাপ্ত রাজ্য সরকারি কর্মচারী, নেশায় কবিতা লেখালিখি। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ: অলৌকিক আত্মঘাত, দুঃস্বপ্নের নগরে নিভৃত নগ্ন, শব্দ ভেঙে...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ