ভাস্কর পালের কবিতা

ভাস্কর পাল
কবিতা
Bengali
ভাস্কর পালের কবিতা

অপরাজিতা

এবার জলপ্রপাতের নীচে দাঁড়িয়ে
ঋক স্বরে করে চলেছি মানব বন্দনা
চিৎকার করে বলেছি যে ঈশ্বর নেই,
যদিও সেই ঈশ্বরই
কোন এক হৃদয়ের অতল থেকে
এক নারীকে এঁকে বললেন
তাকে ভালবাসো।
নারী,
যার পূর্ণতায় কম্পিত, শিহরিত হবে আস্ত এক পাহাড়।

ভালোবাসলে নারীরা হয়ে যায় ষোড়শী নদী
পুরুষেরা জ্বলন্ত কাঠ
খাণ্ডব দহন সেরে এগিয়ে দেই বুক
সাপের ছোবলে ছিল বিষ। কিংশুক নীল
গাছের শিকড়ে ছিল তৃষ্ণা। কৃষ্ণচূড়া লাল
ছোবল খেতে খেতে ছোবল খেতে খেতে
বুক ভরে ওঠে নীল অপরাজিতায়

আজ তোমার রাঙা হাত মাটি মাখা
কপালের লাল টিপ, আলতা রাঙা পা
নীল পেড়ে শাড়ীর আঁচলে জড়ানো এক তুমি
দক্ষিণের জানালায় দাড়িয়ে থাকা সেই তুমি
বাতাসে ঢেউ খেলানো তোমার চুল
উঠোন জুড়ে ছড়িয়ে থাকা ধুলোয়
তোমার গভীর পায়ের ছাপ
অপরূপ এক আত্মবিশ্বাসের ইমন জাল বোনে
বাতাসে তখনও তোমার জুঁই মাখা গন্ধ

একটি পাখি,
পৃথিবীর সব অলিন্দ চিনে নিয়ে
ফিরে আসে নীড়ে
আর তুমি?
আমার অপরাজিতা
সূর্য চেন তুমি?

ভাস্কর পাল। কবি। জন্ম- মালদা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত। অন্যমনে ও প্রতিবিম্ব সাহিত্য পত্রিকার সম্পাদনার সাথে যুক্ত।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

প্রতিভাস

প্রতিভাস

স্পষ্টতা অন্ধকারের মতো স্পষ্টতা আলোর মধ্যগগনে নেই। উত্তাপে ঝলসে যাওয়া চোখে শীতলপাটি বিছিয়ে দেয় রাত…..

চিঠি

ক্ষোভ রোদের দোকানি হয়ে, ছুঁয়ে গ্যাছি দূর পরবাস আলোর ক্রেতারা দেখে, শূন্য ঝুলি খালি সর্বনাশ।…..