মজনু শাহ’র কবিতা

মজনু শাহ
কবিতা
মজনু শাহ’র কবিতা

উপক্রমণিকা

দৈবাৎ এসে পড়েছি শব্দের রাস্তায়।
ক্ষম, কবিতার পাহারাওয়ালা যত, ফিরে যাই
অন্য কোনো দ্বন্দ্বে, যেখানে একটি বুলবুলি পাখি
একবার গেয়ে উঠে মুছে ফেলেছিল নিজেকে—
আমার অর্ধজাগর চৈতন্য খুঁজে পাবে না কিছু, তবু।
নতুন কোনো বর্ণসম্পাত যদি ঘটে হৃদয়ে।
অচেনা দৃশ্যকক্ষ থেকে যদি ঠিকরে আসে আলো।

 

বনভূমি

অন্ধকারে, ঝরে পড়া একটি ডালিম, কী তার আকাঙ্ক্ষা!
যেন বলে, লুপ্ত হও আমার সঙ্গে। ঘোরে জ্যোতিশ্চক্র একা,
জগত ঘুমায়, লাল এক কাঠের বাক্স তবু ভরে ওঠে
ডালিমদানার অবসাদে।
মেলে ধরো, স্বপ্নরাক্ষস, এই আনকা মেঘের জীবনী,
একদিন তুমি ছিলে ডালিমকুমার,
এখন আগুন্তুক মাত্র, কোনো গুপ্ত পরিখার ভিতর
বনভূমির স্মৃতিবাহী একটি পাতা মাত্র।

 

দানব

সেই কবে, একবার স্বপ্নে, কীভাবে যেন ঢুকে পড়েছিলে
দানব-জগতে।

প্রহরীর মতো দাঁড়িয়েছিল ব্রন্টোসোরাসের মূর্তি এখানে সেখানে।
তুমি দেখতে পেলে বজ্র দিয়ে চাবুক বানাচ্ছে কিছু দানব।
একটা উটপাখি ডানা ঝাপটাচ্ছে, আর তা থেকে
জন্ম নিচ্ছে ধূলিঝড়।

ঘুম ভেঙে গেলে আফসোস করেছিলে, বালুতে মুখ গুঁজে রাখা
সেই উটপাখিটিকে কেন তুমি বলতে পার নি—
‘ওঠো, তুমি অপরাধী নও’

মজনু শাহ, জন্ম ২৬ মার্চ ১৯৭০, গাইবান্ধায়। এ পর্যন্ত প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ — আনকা মেঘের জীবনী (১৯৯৯), লীলাচূর্ণ (২০০৫), মধু ও মশলার বনে (২০০৬), জেব্রামাস্টার (২০১১), ব্রহ্মাণ্ডের গোপন আয়না (২০১৪), আমি এক ড্রপআউট ঘোড়া (২০১৬), বাল্মিকীর কুটির(২০১৮)।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ