মায়া

শুক্লা গাঙ্গুলি
কবিতা
Bengali
মায়া

প্রেম-অপ্রেম

ভালোবাসি- বলা হয়নি নুতন করে
যেন লুকিয়ে রাখা একান্ত গোপনে-
তুমি যতটা গদ্য লিখলে
আমিও কবিতায় আপ্রাণ বিন্যাসে

একটু কি হোঁচট খেলাম দুজনেই-
কমা বা সেমিকোলনে

যে নগরে নদী নেই তাকে আপন
লাগেনি কখনও কবে যেন শুনেছিলাম
নদী সব ফিরে ফিরে আসে-

দূর থেকে কাছে
কাছ থেকে দূরে-

সম্পর্ক বেয়ে নামে ঝড় বুঝে না বুঝে
মনেরে কেইবা রাখে- মনে

না বলা বহু শব্দ ঢাকা পরে যায়-
টানাপোডেন আর
চাপা অভিমানে!

 

মায়া

গল্পচ্ছলে কবে কখন স্বপ্ন বুনি বাতাসে
দু-দুটি মহাসাগর পেরিয়ে চলে যায় তা’
তোমার করায়াত্তে- – যে তুমি ইয়ত্তা কর না
প্রেমের বুনন ধোঁয়াসা- জালের

রোজই মুখোমুখি বসি এক কাপ কফি
দূরত্ব মেইনটেইন করে-
জাল কেটে বেরোই
এক টুকরো রোদ আর তক্ষক

আমায় গিলে খেয়ে-
মায়া রাখে টেবিলে
পুনর্জন্ম পাই-

আবারও ইচ্ছা রাখি মনে-

তোমার খোঁজ চলে
যাবত জীবন…

 

ফটিক জল

বহু দিন বাদে বকুল তলায় দেখা সেদিন
কথা শুরু হয়েছে কি হয়নি মেঘ এলো
বেলা ছাপিয়ে। একটাই ছাতা খানিকটা
ভিজে একসা – উপচে পরা মন
আহা রসিক বৃষ্টি!

মরমী মন বৃষ্টির ছাঁট লাগা আকাশ দেখতে
দেখতে উড়ে চোললো অসীমে-
যেন চাতক হোয়ে গলা ভেজানো-
ফটিক জল

পেন্ডুলামের বড় ছোট দুটো কাটাই দুজনের
বরাদ্দ। ইচ্ছে মত নাম্বার সাজানো যার কাজ- সোজাসাপ্টা বা ইউটার্ন
আল্টাআল্টিতে-

মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ভাবছি ওয়াল স্ট্রীটের লাগামহীন একরোখা উদ্যত ষাঁড়ের স্টাচু-
শেয়ার বাজারের ওঠা নামার ধস
এ্যালকোহলের পার্সেন্টেস ও একটি শুকনো
দিয়াশলাই-

অপেক্ষায় সোহাগী নিকোটিন-
প্রতীক্ষিত ধোয়া।।

শুক্লা গাঙ্গুলি। কবি। জন্ম বাংলাদেশের ফরিদপুর। বর্তমান নিবাস যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড। ভারতবর্ষের পুণে থেকে প্রকাশিত ‘প্রবাসী সাথী’ ও 'সমভাষ’ সম্পাদনা করেছেন।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ