যে সম্পর্কটি হারাবে জেনেই

অতনু টিকাইৎ
কবিতা
Bengali
যে সম্পর্কটি হারাবে জেনেই

যে সম্পর্কটি হারাবে জেনেই

সম্পর্কটির নাম রেখোনা। ভরসা রেখো।
নাম মানে সেই ছকে বাঁধা রাস্তা হাঁটা।
বাহু চেয়ে চোখ শক্তিশালী, ভালোবাসায়।
জানলা দরজা খোলা রেখো। ভরসা রেখো।

জানি কখন, কোথায় ছুঁলে উত্তেজনা
বাধা দেওয়ার ক্ষমতা কি সঙ্গে রাখো?
কাছে আসার চেষ্টা তো আর কম করোনি
স্বীকার করি সাহস আছে। নয়তো কি আর…

কিন্তু আমাদের পথটা একটু অন্যরকম
বুঝতে পারি তুমিও ঠিক বোঝো এখন।
নয়তো কি আর শুকনো ঠোঁটে আগুন জ্বেলে
রঞ্জনদা আসছি এখন- হঠাৎ বলো…

গাছ

গাছ হয়ে বেঁচে থাকা সহজ নয়
গাছ হয়ে ভালোবাসা, সহজ নাকি!

ভিতরে সপ্তাশ্ব ছোটাবে,
পুড়ে মরবে অথচ দৃষ্টিতে তার
যেন বটবৃক্ষ ছায়া।

সব প্রেমিকারা এমন মানুষ চায়
সব প্রেমিকেরা এমন মানুষ চায়

সব প্রেমিকারা চায়, তার প্রেমিকটি
দূরে দাঁড়িয়ে, না ছুঁয়ে, শুধু তাকিয়ে
সমস্ত তোলপাড় করার ক্ষমতা রাখুক

সব প্রেমিকেরা চায়, তার প্রেমিকাটি
দূরে দাঁড়িয়ে, না ছুঁয়ে, শুধু তাকিয়ে
সমস্ত তোলপাড় করার ক্ষমতা রাখুক

সাঁকো

তারা ভেবেছিল, সাঁকোটাই যত নষ্টের গোড়া
তারা ভেবেছিল, ভাঙতে পারলেই খেলা শেষ

খুব চতুরতায় ভাঙা হয়েছিল সাঁকোটি।
তারা তৃপ্তির হাসি হেসেছিল যুদ্ধ জয়ের
খুব গোপনে

তারা কখনো প্রেমিক হয়নি নিশ্চয়ই
তারা কখনো প্রেমিকা হয়নি কারোর
নইলে জানতো ঠিক’ই
এক হৃদয়, অপর হৃদয় ছুঁয়ে ফেললে
শহর- নদী, রোদ্র- ছায়া,
পৃথিবীসুদ্ধ গান- কবিতা,
পৃথিবীসুদ্ধ সমস্ত পথ
তার কাছেই তো যায়…

পৃথিবীসুদ্ধ যা কিছু তখন, একেকটা সাঁকো।

 

বৃষ্টিদিনের কবিতা

হঠাৎ করে মেঘ ঘনিয়ে এলে,
পড়লে মনে, দিও দুহাত মেলে
বৃষ্টি ভিজুক তোমার নরম গালে
বৃষ্টি ভিজুক তোমার খোলা চুলে

বৃষ্টি তোমায় ভাসিয়ে দেয় যদি,
জানবে দূরে কান্না একটা নদীর।
বৃষ্টি, নদীর কান্না বয়ে নিয়ে
ভিজছে বসে তোমার চিবুক, গালে।

তুমি আমার মাতাল করা হাওয়া,
ভিজছে আলো- এমন’ই কাকভোর।
তোমার দূরে, তোমার সাথে আমার
দিব্যি থাকা, জানে এ শহর।

দিব্যি আছি, ভালো থেকো তুমি
পড়লে মনে, দিও দুহাত মেলে
বৃষ্টি তোমায় ভাসিয়ে দেয় যদি,
জানবে দূরে কান্না একটা নদীর।

অতনু টিকাইৎ। কবি। জন্ম ২২ জানুয়ারি ১৯৯২, ভারতের পশ্চিমবঙ্গরাজ্যের পুরুলিয়ায়। নর্থ ক‍্যালকাটা পলিটেকনিক থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি করেছেন। প্রকাশিত বই: 'স্মৃতি হয়ে থাক' (কাব্যগ্রন্থ), 'আত্মগোপন' (কাব্যগ্রন্থ), 'গাছ' (কাব্যগ্রন্থ) এবং 'কিছু কথা ছিল' (অনুগল্প)।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

বেশরম

বেশরম

বেশরম কি কঠিন ছিলো, ডুব সাঁতারের রুদ্ধ দম তোমাকে ভুলেছি ঠিক এক বেশরম- আবার পড়েছি…..

তোমার জন্য

তোমার জন্য

পাষাণের প্রেম বিকট স্তব্ধতায় সুনিপুণ সীমানা প্রাচীর তুলেছ, বেসামাল ভালোবাসার জাগতিক জায়নামাজে। প্রার্থনার গতিরোধ করো…..