শিল্পিত মিথ্যার প্রেসনোট

আকাশ মামুন
কবিতা
Bengali
শিল্পিত মিথ্যার প্রেসনোট

পাখি জীবন

নাটাই কি জানে ঘুড়িকে বেঁধে সেও বন্দি হয়ে আছে
বন্দি পাখি কখনও পোষ মানে না
আমি পাখির মত উড়িয়ে দিলাম তোমায়
উড়ে উড়ে ঘুরে ঘুরে বেড়াও
যদি মনে পড়ে, আথালি-পাথালি পোড়ায় মন
চুঞ্চু ভরে তুলে এনো মটর-মসুর সরিষা-গম
ঠোঁটের কারুকাজে ভরিয়ে দিব সারা অঙ্গ
বিনিময় করব এদেহে সঞ্চিত যত ওম

যদি উড়ে যেতে চাও অলক্ষ্যে-যাও দূরে যাও
যদি ভুলে যেতে চাও ক্ষণিকে বা চিরতরে-তবে তাই যাও
আমার হৃদয় পোড়ায়-পোড়াক
শুন্য ঘরে একা লাগে লাগুক
সযতনে ভুলে যাব একলা থাকার দহন
ও পাখি তুমি উড়ে উড়ে যাও
দূর দিগন্তে ঘুরে ঘুরে বেড়াও
চঞ্চু ভরে খুটে খুটে খাও
যদি মনে পড়ে, আথালি-পাথালি পোড়ায় মন
চুঞ্চু ভরে তুলে এনো মটর-মসুর, সরিষা-গম

 

নিভৃতচারী মন

শুধু কথা হয়নি বলে কত আপনজন কাছে আসেনি
একটা ডাকের অপেক্ষায় কত কত উৎকর্ণ মানুষ চলে গ্যাছে
কত কত না বলা কথা রয়ে গ্যাছে অগোচরে-মনের ডাকবাক্সে
কত কত ভাবনা শূন্যে গ্যাছে উড়ে-পরিযায়ী মেঘের মত ভেসে
ঘরের আসবাব সোপিস-উন্মোক্ত প্রান্তরে মনুমেন্টের মত একা
দাঁড়িয়ে আছি আপন চৌহদ্দি পরে-কেন্দ্র থেকে নির্দিষ্ট দূরত্বে
নিভৃতচারী মন আমার-বাউণ্ডুলে জোছনার মত শূন্যে ভাসাই দেহ
অস্পৃশ্য থাকি-ছোঁয়ে দ্যাখার অপার বাসনায় কোথাও অপেক্ষায় নেই কেহ
থমকে থাকা দুপুর ধীরে চলা বিকেল বাঁক হয়ে চলে গ্যাছে দূরে
হাটুজলে গলা অব্দি স্মৃতিরা ঘাই মারে মনের গহীন ঘরে
ফিরে যাওয়া বিষন্ন পথ এঁকেবেঁকে চলে যায় জনহীন প্রান্তরে
নিরব শবযাত্রার মত শান্ত নিথর-জনারন্যে হাজারও সহগামী
তবুও চেরাই কলে খন্ডিত হয় মন-হাঁটুজলের নদী পার হয় মেটে শাপ
কারখানার সাইরেনের মত বিকট শব্দে বেজে উঠে বিষাদের বাঁশি

 

শিল্পিত মিথ্যার প্রেসনোট

শিল্পিত মিথ্যায় ভরে গ্যাছে দেশ-জনতার সামনে মিথ্যা সমাবেশ
সাদা ভাতের সাথে প্রতিদিন আমরা কালো কালো মিথ্যে খাই
জননেতা থেকে ধর্মীয়নেতা অনুগত আমলা থেকে রাষ্ট্রপ্রধান
ফরমায়েশি শিল্পিত মিথ্যার লিখিত প্রেসনোটে চলছে রাষ্ট্র
প্রতিদিন গণমাধ্যমে সত্যের মোড়কে মিথ্যার ঝাপি খুলে বসে রাষ্ট্রীয় মুখপাত্র
একদল পোষা বুদ্ধিজীবী কথার মারপ্যাঁচে প্রতিষ্ঠা করে সেই মিথ্যা
কৌশলী মিথ্যের আড়ালে ঢেকে যায় উলঙ্গ সত্যের নির্মম নিষ্ঠুরতা
আর রাষ্ট্র ভাসে মিথ্যা বেনিয়া উন্নয়নের হাওয়াই জাহাজে
অথচ ভাতের অভাবে না খেয়ে ফুটপাতে ঘুমায় ঘরহারা মানুষ
অচেনা নারীর মাথাহীন বিবস্ত্র লাশ নিষ্ঠুরতার ছাপ নিয়ে ভেসে উঠে ডুবায়
বিচারের দাবিতে দিন কাটে অসহায় মেহনতী মানুষের
সত্য উচ্চারণে কারাগারের দোয়ার যায় খূলে-গুম হয়ে আর ফিরে-আসে না ঘরে
আর রাষ্ট্রীয় কৌসুরী উৎকর্ণ চেয়ে থাকে গণভবনের দিকে
রাতের আধারে জনতার ন্যায্য অধিকার চুরি হয় পার্টি অফিসে
তবু ক্যামেরার সামনে হাসিহাসি মুখ নিয়ে মিথ্যা আশ্বাসে হাজির হয় বেহায়া রাষ্ট্রপ্রধান
পরদিন কাগজের প্রথম পাতা ভরে লেখা হয় তার ফরমায়েশি স্তুতি
মিথ্যা উন্নয়নের ফাঁকা পোস্টারে ভরে যায় পুয়াতি নগরীর পথঘাট
সত্যটা সবাই জানে তবু কেউ বলে না বন্দুকের নলের ভয়ে
ভাবে একদিন ছাঁই চাপা আগুনের মত সত্য বেরিয়ে আসবে মহাসমারোহে
জনতার রায় বিহীন মিথ্যা ইসতেহার ঝুলে নগরের প্রবেশপথে
নকল বিজয়োল্লাশে মিছিলের সামনে হাসে সরকারদলীয় নেতা

একদিন এই জনতাই জেগে উঠবে তিতুমীরের মত- ক্ষুদিরামের মত
জেগে উঠবে সারে সারে লক্ষ জনতা মুক্তি ফৌজের মত
ফরমায়েশি মিথ্যার ইশতেহার নামিয়ে নগরে ঝুলাবে সত্যের ফেস্টুন
ঘোষিত হবে ন্যায়বিচারের পঙক্তিমালা-বাকস্বাধীনতার জ্বলজ্বলে ফরমান

আকাশ মামুন। কবি।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

কবুতর

কবুতর

অগ্নিকাণ্ড আমার চৌহদ্দিতে ধ্বংসস্তুপের ভীড় পুনর্বার নুয়ে পড়া অতীতের তীর জীবনের মাঝপথে রেখে যায় সম্পর্কের…..