সেঁজুতি বড়ুয়ার দুইটি কবিতা

সেঁজুতি বড়ুয়া
কবিতা
Bengali
সেঁজুতি বড়ুয়ার দুইটি কবিতা

সুরের প্রলাপ

ভেসে যাচ্ছি তরল বায়বীয়ে, দানাদার বুদবুদে!
ভোরের ঘোরলাগা অস্থির মজ্জা-শরীরে…
একটা রাতজাগা পাখা এনে দাও না রাতের শিশির?
নাহয় কিছুক্ষণ বুঁদ হয়ে থাকি, সুরের বারামখানায়
অকারণে কান পেতে থাকি তাহাদের লহরীতে
মানবীয় মিশ্রণে গমকে ঠমকে কাঁপি অদ্ভুত ব্যথায়
কাহারবা অতলস্পর্শে ভাসি জ্বলদ সেতার সংযোগে…

বিসর্জন অথবা সত্য মিথ্যে অবহেলার খেলা

আলোর রোশনাইয়ে সমস্ত আদর খুইয়ে অনাদর দেয়ালের পাঁজরের হাড়ে
মৃত সঞ্জীবনী খোঁজে! ঝকমারি বাজারি আলোয় বিঁধে যাচ্ছে
তার না-মানুষী অস্থির মন…
একদা সেও এই আলোর চমকে অজস্র ঝিকিঝিকি লাল-নীল পাথরের চোখে
উড়ন্ত জোনাকির আলোয়ানে ঠোঁটের সীমানা পেরুতো!
সমুদ্রের কাঙাল ঢেউয়ে দুপুর-রাতের বিকলাঙ্গ অস্থিরতায় থির থাকতো
এখন না-মানুষী শরীরী অবয়বে গভীর খাদের উপর ভালোবাসার অন্ধ সফলতায়…
স্তব্ধ শ্বাসে…প্রস্তুত হয়…অতল গহ্বরে, অলৌকিক তারাদের মাঝে মিশে যেতে…
অথচ ভালোবাসা সম্পর্কীয় গ্রামের সেই অবিশ্বাসী পুরুষ যুবাটি কপালে তিলক এঁকে
তখন মন্ত্র আওড়াচ্ছে প্রতিমা বিসর্জনের!

সেঁজুতি বড়ুয়া। মূলতঃ কবি। পাশাপাশি গল্প, ছোটদের গল্প, বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় প্রবন্ধ-নিবন্ধসহ নানা বিষয়ে ফিচার লিখে থাকেন। জন্ম চট্টগ্রামের পটিয়ার কোলাগাঁও-এ মামা বাড়িতে। যদিও নিজ বাড়ি রাউজানের মহামুনি পাহাড়তলি গ্রামে। ঢাকায় বেড়ে ওঠা, পড়াশোনা, জীবিকা সবকিছু। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে...

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ