হ্যালুসিনেশন

শ্রাবণী সিংহ
কবিতা
Bengali
হ্যালুসিনেশন

এক

জেগে ওঠে ইন্দ্রিয়শাখারা, জীর্ণ হলেও বালাপোশে নরম বেড়ালের বুকের ওম
দুঃখেও ভিজি, কখনো অধিক সুখেও।
বৃষ্টি ধুয়ে দেয় কতকিছুই।
বর্ষা বিকেলের হ্যালুশিনেশন,
ছুঁড়ি গাই নদী পেরোয়
আর পলিতে রেখে যায় ক্ষুরের আলপনা।

দুই

মাড়ভাতের গন্ধ উপত্যকা পেরোয়, এক চোখা
হিমদানবের গল্প শুনতে শুনতে
ঘুমিয়ে পড়া,
মাতামহীর আঁচলের জ্যোৎস্না মিথ এখন
কত ঋণশোধ একজীবনে হয়েই ওঠে না
ছাইদান অসাড় হৃদপিণ্ড
এ দরজার বয়সও পেরিয়ে গেছে বৃদ্ধ ফেরেস্তার মতন।

তিন

সরু সরু দরজা, সবটাই কাঠের নয় কিছু কিছু ইস্পাতেরও, নিষ্কলঙ্ক কঠিন
চিবুক নামিয়ে নিলে করাতের ধার
পাতার ফসফরাস নিয়ে জ্বলে ওঠে ডাইভারশন
পালকের পোশাকে তোমাকে জটায়ু লাগে।

চার

রাজহাঁস গুলো কস্টিউম খুলে রেখে জল ঝরাচ্ছে
তাকের উপর পুতুলের ঘরবাড়ি, ঘাড়-নাড়া বুড়ো
মাটির রথ, সঙের সিপাই
আমাদের হাত পৌছয় না
স্বপ্নে আমরা ছোটই থেকে যাই

শ্রাবণী সিংহ। কবি। জন্ম ও নিবাস উত্তর-পূর্ব ভারতের অসম রাজ্যের গুয়াহাটি শহরে।

এই বিভাগের অন্যান্য লেখাসমূহ

প্রতিভাস

প্রতিভাস

স্পষ্টতা অন্ধকারের মতো স্পষ্টতা আলোর মধ্যগগনে নেই। উত্তাপে ঝলসে যাওয়া চোখে শীতলপাটি বিছিয়ে দেয় রাত…..

চিঠি

ক্ষোভ রোদের দোকানি হয়ে, ছুঁয়ে গ্যাছি দূর পরবাস আলোর ক্রেতারা দেখে, শূন্য ঝুলি খালি সর্বনাশ।…..